ভোট না দেওয়ায় প্রবাসীর বাড়িতে লাল পতাকা টানালেন ইউপি সদস্য

প্রকাশিত: 12:30 PM, March 28, 2020

বড়াইগ্রামে ইউপি নির্বাচনে সমর্থন না করায় তিন মাস আগে ফিরে আসা এক প্রবাসীর বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দিয়েছেন এক ইউপি সদস্য এবং পরে প্রচার করা হয় যে, ওই বাড়িতে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী রয়েছে।

ফলে আতঙ্কে প্রতিবেশীরা অনেকেই বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে যান। এক ঘরে হয়ে পড়েন ওই প্রবাসী ও তার পরিবার। উপজেলার চান্দাই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

চান্দাই গ্রামের খবির উদ্দীনের ছেলে বিকাশ খান বাবু (২৮) মালয়েশিয়ায় থেকে তিনমাস মাস আগে দেশে ফিরে নিজ এলাকায় স্থায়ী ভাবে বসবাস করেন। চলতি বছরের ৭ মার্চ মাস পাবনা জেলার আটঘরিয়া গ্রামে বিয়ে করে সুখে শান্তিতে সংসার করছিলেন।

বিগত ইউপি নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ বাবুর পক্ষে কাজ না করায় প্রতিশোধ হিসেবে বৃহস্পতিবার বিকালে তিনি দলবল সহকারে ওই প্রবাসী তরুণের বাসার সামনে লাল পতাকা টানিয়ে দেন এবং প্রচার করেন যে এ বাসায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী আছে।

প্রবাসী তরুণ বাবু পাসপোর্ট এবং বিমান টিকেট দেখিয়ে বলেন, ছয় বছর মালয়েশিয়া থেকে গত ১ জানুয়ারি তিনি বাড়িতে ফিরে আসেন। তারপর থেকে তিনি গ্রামেই আছেন। চলতি বছরের ৭ মার্চ পারিবারিক ভাবে বিয়ে করেন। সরকারি ঘোষণার পর থেকে তিনি নববধূসহ তার পুরো পরিবার বাসায় অবস্থান করছেন।

তিনি বলেন, হঠাৎ করে বৃহস্পতিবার ইউপি সদস্য মোহাম্মদ বাবু তার বাসার সামনে লাল পতাকা টাঙিয়ে দিয়ে এ বাসায় করোনা আক্রান্ত রোগী আছে বলে প্রচার করে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার পারভেজ বলেন, হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হওয়ার পরও ওই বাসায় লাল পতাকা টানানো ঠিক হয়নি। আমি শোনার পরই ব্যবস্থা নিয়েছি।