ধর্ষণ বন্ধে জাতীয় সিলেবাস ও শিক্ষানীতির মাঝে পরিবর্তন আনতে হবে: আল্লামা নুর হোসাইন কাসেমী

প্রকাশিত: 6:05 PM, October 16, 2020

স্টাফ রিপোর্টার: আজ শুক্রবার জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররমে সমমনা ইসলামি দলগুলোর ধর্ষণবিরোধী বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন,দেশে ধর্ষণের মতো আর একটি ঘটনাও সংগঠিত হতে দেয়া হবে না। ধর্ষকের শাস্তি জনসম্মুখে কার্যকর করতে হবে বলে সরকারের প্রতি দাবী জানিয়েছেন সমমনা ইসলামী দলের আহবায়ক আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

তিনি বলেন, একদিকে দেশ করোনায় হাবুডুবু খাচ্ছে। অপরদিকে মা বোনদের আব্রু- ইজ্জত লুণ্ঠিত করা হচ্ছে। যেভাবে হায়েনার মতো তাদের আব্রু ইজ্জত শেষ করা হচ্ছে। তাদের হত্যা করা হচ্ছে। এ পরিস্থিতি দেশে আর চলতে দেয়া যেতে পারে না। চলমান এ পরিস্থিতিতে আলেমসমাজ চুপ করে বসে থাকতে পারে না। তাই তারা বাধ্য হয়েছেন মাঠে নামতে। আমি স্পষ্ট ভাষায় বলে দিতে চাই, এদেশে ধর্ষণের মতো আর একটি ঘটনাও সংগঠিত হতে দেয়া হবে না। ধর্ষকের শাস্তি জনসম্মুখে কার্যকর করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, নবীদের শিক্ষা, ‘যখন তোমার লজ্জা চলে যাবে তখন যা ইচ্ছা তাই করতে পারবে।’ লজ্জা-শরম-হায়া এটা হলো (স্টেয়ার) ব্র্যাক। এ স্টেয়ার যদি চলে যায় তাহলে জাতি ধ্বংষ হয়ে যায়। আজ এ ব্র্যাককে আমরা ধ্বংস করে দিয়েছি বিধায় সমাজে এ অবস্থার সৃষ্ঠি হয়েছে।

এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য আমাদের জাতীয় সিলেবাস ও শিক্ষানীতির মাঝে পরিবর্তন আনতে হবে। কুরআন-সুন্নাহর আলোকে শিক্ষানীতিকে সাজাতে হবে। আমাদের মা-বোনদের কুরআন-সুন্নাহ যে অধিকার দিয়েছে সে অধিকার শিক্ষা সিলেবাসে অন্তর্ভূক্ত করতে হবে।

এর পাশাপাশি জিনা-ভ্যাবিচার সহ সর্বপ্রকারের ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। শুধু আইন করলেই চলবে না। আইনের প্রয়োগ করতে হবে।

আর আইন হওয়া চাই ন্যায় বিচারের আইন। ন্যায় বিচারের আইন করতে হলে কুরআন-সুন্নাহর আইন এদেশে বাস্তবায়ন করতে হবে। কুরআন-সুন্নাহর আইন ছাড়া দেশে কখনো শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব হবে না।

তিনি বলেন, সমমনা ইসলামী দল এদেশের তৌহিদী জনতাকে সাথে নিয়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।