থানায় মা-মেয়ের সামনে পুলিশের হস্তমৈথুন ভিডিও ভাইরাল

প্রকাশিত: 12:29 AM, February 22, 2021

পুলিশের এক কর্মকর্তা এক নারী অভিযোগকারীর সামনে হস্তমৈথুন করার দায়ে বরখাস্ত হয়েছে। ভীষ্ম পাল সিং নামে এই পুলিশ সদস্য বেশ কিছুদিন ধরেই ওই নারীর অভিযোগ নেওয়ার নাম করে ডেকে আনিয়ে তার সামনে হস্তমৈথুন করছিলেন।

এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ওই নারী কয়েকদিন ধরেই মানসিক নিপীড়নের শিকার হচ্ছিলেন বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে জানানো হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা ভীষ্ম পাল সিংকে উচিত শিক্ষা দিতে তিনি ভিডিও ধারন করেন। পরে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার পরই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি।

ওই ভুক্তভোগী নারী বলেছেন, অভিযোগ দায়ের করার জন্য তিনি ওই পুলিশ কর্মকর্তার চেম্বারে গিয়েছিলেন। তখনই তিনি তার সামনে নিজের যৌনাঙ্গ স্পর্শ করেন। এর আগেও ওই নারীর সামনে অনেকবার থানার মধ্যেই একই অপকর্ম করেছেন ভীষ্ম পাল।

তাকে বারবার ডাকিয়ে আনতেন। জমি সংক্রান্ত বিবাদ নিয়ে থানায় অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন ওই নারী। সাথে তার মেয়েও ছিল।
ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যায়, রাজ্যের ভাটনি থানার কর্মকর্তা ভীষ্ম পাল সিং থানায় বসে অভিযোগকারী ওই নারীর সামনে হস্তমৈথুন করছেন।

ভিডিওটি সোল্যাল মিডিয়ার ভাইরাল হওয়ার পর পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ দেখা দেয় গোটা এলাকায়।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যের কড়া শাস্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে ওঠেন এলাকাবাসী।

এঘটানার সত্যতা নিশ্চিত করে এলাকার পুলিশ সুপার দেওরিয়া জানান, ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করে তার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওই নারী কয়েকদিন ধরেই মানসিক নিপীড়নের শিকার হচ্ছিলেন।

পুলিশ কর্মকর্তা ভীষ্ম পাল সিংকে উচিত শিক্ষা দিতে তিনি ভিডিও ধারন করেন। পরে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার পরই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি।

ওই ভুক্তভোগী নারী বলেছেন, অভিযোগ দায়ের করার জন্য তিনি ওই পুলিশ কর্মকর্তার চেম্বারে গিয়েছিলেন। তখনই তিনি তার সামনে নিজের যৌনাঙ্গ স্পর্শ করেন। এর আগেও ওই নারীর সামনে অনেকবার থানার মধ্যেই একই অপকর্ম করেছেন ভীষ্ম পাল।

তাকে বারবার ডাকিয়ে আনতেন। জমি সংক্রান্ত বিবাদ নিয়ে থানায় অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন ওই নারী। সাথে তার মেয়েও ছিল।