৫০ হাজার বছর পূর্বের মানুষের ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার!

সম্পাদনা শাব্বির আহমদ সম্পাদনা শাব্বির আহমদ

এডিটর টাইমস রিপোর্ট টোয়েন্টিফোর

প্রকাশিত: 8:55 PM, June 20, 2020

বর্তমানে অনেক অত্যাধুনিক অস্ত্র-সস্ত্র রয়েছে বিশ্বব্যাপী। তবে কখনো কি ভেবে দেখেছেন, প্রাচীনকালের অস্ত্র কেমন ছিল? কীভাবে তখনকার মানুষেরা নিজেদের বাঁচাতে অস্ত্র ব্যবহার করত? এসব প্রশ্নের জবাব আমাদের অনেকেরই অজানা। তবে প্রত্নতাত্ত্বিকদের বিভিন্ন গবেষণার মাধ্যমে অবশ্য আমরা প্রাচীনকালের অনেক কিছু সম্পর্কেই জানতে পারি। তেমনই সম্প্রতি একদল গবেষক প্রায় ৫০ হাজার বছর পূর্বের অস্ত্রের দেখা পেয়েছেন।

এই প্রাচীন অস্ত্রগুলো প্রায় ৪৫ থেকে ৪৮ হাজার বছর পূর্বের। আপার প্যালিওলিথিক যুগ শুরু হয়েছিল প্রায় ৪০ হাজার বছর পূর্বে। পাথরের তৈরি বিভিন্ন নিদর্শন থেকে সেই সময় সম্পর্কে জানা যায়।

জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া এবং শ্রীলঙ্কার বিজ্ঞানীদের অংশগ্রহণে একটি আন্তর্জাতিক গবেষক দল শ্রীলঙ্কার ফা-হিয়েন লেনা গুহা থেকে প্রাপ্ত নিদর্শন নিয়ে গবেষণা করেছিলেন। গুহাটি শ্রীলঙ্কার রেইন ফরেস্টের মধ্যে অবস্থিত। এক সময় এই অঞ্চলে প্রাগৈতিহাসিক প্লিস্টোসিন মানুষের বসবাস ছিল।

১৯৬০ এবং ১৯৮০ এর দশকে খননকালে ফা-হিয়েন লেনা গুহার পলির মধ্য থেকে জীবাশ্ম কঙ্কালের অবশেষ আবিষ্কৃত হয়। সাম্প্রতিক সময়ে একই স্থান থেকে গবেষক দল প্রাগৈতিহাসিক মানুষের ব্যবহৃত ধনুক এবং তীরের সন্ধান পেয়েছেন। যা আফ্রিকার বাইরে প্রাগৈতিহাসিক মানুষের ব্যবহৃত অস্ত্রের প্রাচীনতম নিদর্শন। ১৯৮০ এর দশক থেকে শ্রীলঙ্কার ফা-হিয়েন লেনা গুহা দক্ষিণ এশিয়ার সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ প্রত্নতাত্ত্বিক সাইট। এখান থেকে প্রাগৈতিহাসিক মানুষের ব্যবহৃত বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সরঞ্জামাদি আবিষ্কৃত হয়েছে। এই গুহা থেকে আবিষ্কৃত প্রায় ৫০ হাজার বছর পূর্বের ধনুক এবং তীরের ধ্বংসাবশেষ থেকে শিকারের প্রমাণ মেলে। ধনুক এবং তীর তৈরি করতে পশুর হাড় ব্যবহৃত হয়েছিল।

বিজ্ঞানীরা ধারণা করেন, প্রাণী শিকার করে তাদের হাড় এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে প্রাগৈতিহাসিক যুগের এই অস্ত্র নির্মিত হয়েছিল। গবেষকদের ধারণা, শূকর, হরিণ এবং প্রাইমেটদের হাড় থেকে তৈরি এই সরঞ্জামগুলো শিকারিদের রেইন ফরেস্ট বানর এবং কাঠবিড়ালি ধরতে সহায়তা করত।

ইউরোপে প্রাপ্ত প্রাগৈতিহাসিক যুগের অস্ত্র থেকেও এইগুলো প্রাচীন। ফা-হিয়েন লেনা গুহা থেকে প্রাগৈতিহাসিক যুগের অস্ত্র, ছাড়াও হাড় এবং অন্যান্য কয়েকটি নিদর্শন পাওয়া গিয়েছে। কিছু বাঁকানো হাড় এবং সামুদ্রিক পদার্থ পাওয়া গিয়েছে। গুহা থেকে প্রাপ্ত নিদর্শনগুলোর প্রকৃত ব্যবহার জানার জন্য বিভিন্নভাবে পরীক্ষা করা হয়েছে। তবে এগুলোর যথাযথ ব্যবহার সম্পর্কে জানা যায়নি।

হোম সেপিয়ানরা কীভাবে বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়ে এবং কঠিন পরিবেশেও মানিয়ে নিতে সক্ষম ছিল তার কিছু আলামত মেলে এই সব নিদর্শন থেকে। গবেষকরা মনে করেন, প্রাগৈতিহাসিক এই নিদর্শন থেকে গবেষণা করে আপার প্যালিওলিথিক যুগ সম্পর্কে অনেক কিছু জানা সম্ভব। তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন গবেষণার মাধ্যমে ফা-হিয়েন গুহা থেকে প্রাপ্ত অন্যান্য সরঞ্জামগুলোর ব্যবহার সম্পর্কেও জানা যাবে একসময়।