শ্যামনগরে ত্রাণ দিতে গিয়ে হামলায় বিএনপির ১৫ নেতাকর্মী আহত

প্রকাশিত: 9:46 PM, June 21, 2020

আম্ফান দুর্গত এলাকা সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে হামলার হামলার শিকার হয়েছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দারের ছেলে শ্যামনগর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক রাজিব হায়দারের নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সাতক্ষীরা জেলা বিএনপি।

হামলায় বিএনপির ১৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তারা হলেন, উপজেলা যুবদলের সভাপতি আজিবর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম দুলু, আনিছ, মোক্তার, সালাম, মিঠু, ছাত্রদল নেতা মাসুদ রাসেল প্রমুখ। এছাড়া ভাঙচুর করা হয়েছে ১০-১২টি মোটরসাইকেল ও একটি মাইক্রোবাস।

রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শ্যামনগর উপজেলার কাটখালী ব্রিজের পাশে ও পরে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নকিপুর এলাকায় স্থানীয় এমপির বাড়ির সামনে রাস্তায় এ হামলা চালানো হয়।

শ্যামনগর উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান কবীর জানান, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলার কাশিমাড়ীর ৪০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিতে সকালে জেলা বিএনপির নেতারা শ্যামনগরে পৌঁছান। এসময় দফায় দফায় হামলা চালানো হয় বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর।

এ ঘটনায় সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সৈয়দ ইফতেখার আলী জানান, স্থানীয় সরকার দলীয় সংসদ সদস্য এসএম জগলুল হায়দারের ছেলে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক রাজিব হায়দারের নেতৃত্বে তার চাচাতো ভাই ফেরদাউস হোসেনসহ ১৮-২০ জন তরুণ লাঠি নিয়ে সরাসরি হামলা চালায়।

হামলায় জেলা যুবদলের সভাপতি আবু জাহিদ ডাবলু, সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান মুকুল ও স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি সোহেল আহমেদ মানিকসহ উপজেলা নেতাকর্মীরাও আহত হয়েছেন। ১০-১২ টি মোটরসাইকেল ও একটি মাইক্রোবাস ভাঙচুর করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত ৪০০ পরিবারকে সহায়তা দেয়ার জন্য যে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল সেগুলো বিতরণ করতে দেয়া হয়নি।

তবে এ ব্যাপারে এমপির ছেলে যুবলীগ নেতা রাজিব হায়দার বলেন, এমন ঘটনার কথা শুনে আমার চাচা আমাকে ঘরে আটকে রাখেন। তবে, শুনেছি তারা এলাকায় ত্রাণ দিতে গিয়ে হৈ হুল্লোড় করায় স্থানীয়রা করোনার সময় এমন হৈ হুল্লোড়ে ক্ষেপে গিয়ে তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

শ্যামনগর থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হুদা জানান, ঘটনাটি এখনও কেউ আমাকে জানায়নি।

টিআর/জাগো নিউজ