গৃহবধূকে কু’ড়াল দিয়ে কু’পিয়ে হ’ত্যা করলেন স্বামী

সম্পাদনা শাব্বির আহমদ সম্পাদনা শাব্বির আহমদ

এডিটর টাইমস রিপোর্ট টোয়েন্টিফোর

প্রকাশিত: 12:44 PM, July 25, 2020

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে রোজিনা বেগম (২৬) নামে এক গৃহবধূকে কু’ড়াল দিয়ে কু’পিয়ে হ’ত্যা করেছে স্বামী ছামিউল মিয়া।

হ’ত্যাকাণ্ডের পর ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় অ’ভিযুক্ত স্বামী।

শুক্রবার (২৪ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের পাইটকাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নি’হত গৃহবধূ রামধন (মওয়ামারী) গ্রামের ওয়ারেছ আলীর মেয়ে। এবং অ’ভিযুক্ত ছামিউল পাইটকাপাড়া গ্রামের রহমান মিয়ার ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, পারিবারিক দূরাবস্থার কারণে ঢাকায় পোশাক শ্রমিকের কাজ করতেন গৃহবধূ রোজিনা।

আর স্বামী ছামিউল সেখানে কাঠমিস্ত্রীর কাজ করতেন। তখন থেকেই দুজনের মধ্যে স’ন্দেহের জে’রে দাম্পত্য ক’লহ চলে আসছিল।

প্রায় একমাস আগে রাগে ঢাকা থেকে রোজিনা বেগম তার বাবার বাড়িতে চলে যান। পরে স্বামী ছামিউল স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সহায়তায় সা’লিশের মাধ্যমে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসেন। 

পারিবারিক বিষয়ে শুক্রবার সকাল থেকেই দুজনের মধ্যে ঝ’গড়াঝাঁ’টি সৃষ্টি হয়। এরপর সন্ধ্যায় বাড়ির পাশের বিলে মাছ মারার কথা বলে ওই গৃহবধূকে বাহিরে নিয়ে যায় তার স্বামী।

পরে বিলের মাঝে নিয়ে গিয়ে কাঠমিস্ত্রীর কু’ড়াল দিয়ে গ’লায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে কু’পিয়ে হত্যা করে। ওই গৃহবধূর চি’ৎকার শুনে তার শ্বশুর-শ্বাশুড়ি এগিয়ে এলে তাদেরকে ধা’ক্কা দিয়ে পানিতে ফেলে দেয়।

এ সময় তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে অভিযুক্ত স্বামী পা’লিয়ে যায়। পরে খবর পেয়ে পু’লিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লা’শ উদ্ধার করেন। 

নি’হতের বাবা ওয়ারেছ আলী জানান, বিয়ের পর থেকেই নানা ইস্যুতে তাদের ঝ’গড়াঝাঁ’টি হত।

এ নিয়ে বেশ কয়েক বার সা’লিশও হয়। প্রায় একমাস আগে সা’লিশের মাধ্যমে আমার মেয়েকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। আর আজকে ওরা আমার মেয়েটাকে মে’রে ফেলল। আমি ওই পা’ষণ্ডের শা’স্তি চাই।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহিল জামান বলেন, এ ঘটনায় নি’হতের লা’শ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ম’র্গে পাঠানো হচ্ছে। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।